রাবিতে উপ-উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন

প্রকাশ: ০৩ অক্টোবর ২০১৯   

রাজশাহী ব্যুরো

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চোধুরী মোহাম্মদ জাকারিয়ার বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ তুলে তার পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। 

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে ‘দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকবৃন্দ’ এর ব্যানারে মানববন্ধন শুরু করে অর্ধশত শিক্ষক।

তাদের দাবি-বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিয়োগ বাণিজ্যসহ বিভিন্নখাতে লাগামহীন দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েছে। দ্রুত দুর্নীতিবাজ প্রশাসনের পদত্যাগ দাবি করেন তারা।

কর্মসূচিতে অংশ নেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ও পিআইবির সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস, রাবির পরিবেশ বিজ্ঞান ইন্সটিটিউটের সাবেক পরিচালক অধ্যাপক সুলতানুল ইসলাম টিপু, ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক আলী রেজা অপু, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সাবেক প্রশাসক ও বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সফিকুন্নবী সামাদী, জনসংযোগ দফতরের সাবেক প্রশাসক অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ইলিয়াছ হোসেন, সাবেক প্রক্টর মনোবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মুজিবুল হক আজাদ খান ও সাবেক ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক মিজানুর রহমান।

এ দিকে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের সব উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে লাগামহীন দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদস্বরূপ খালি পায়ে শহীদ ড. শামসুজ্জোহা চত্বরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ফরিদ খান। সকাল সোয়া ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত কর্মসূচি পালন করেন তিনি।

তার হাতের প্ল্যাকার্ডে লেখা দেখা যায়- দুর্নীতিমুক্ত শিক্ষাঙ্গন চাই, শিক্ষকের মর্যাদা নিয়ে বাঁচতে চাই। তবে অবস্থান কর্মসূচি নিয়ে কোনো কথা বলেননি অধ্যাপক ড. ফরিদ খান।

অপরদিকে ‘দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষার্থীবৃন্দ’ ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চোধুরী মোহাম্মদ জাকারিয়ার পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু করেন তারা। পরে সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে শিক্ষকদের কর্মসূচিতে যোগ দেন তারা।

কর্মসূচি চলাকালে 'জোহা স্যারের ক্যাম্পাসে চাঁদাবাজি চলবে না', ‘উপরে আল্লাহ নীচে আমি, কত দিতে রাজি তুমি', 'দুর্নীতির বিরুদ্ধে আগুন জ্বালাও একসাথে', 'দুর্নীতিবাজ প্রো-ভিসি পদত্যাগ করো, করতে হবে', ''চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে আগুন জ্বালাও একসাথে", 'এসো ভাই এসো বোন গড়ে তুলি আন্দোলন', ইত্যাদি স্লোগান দিতে দেখা যায়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৭ নভেম্বর আইন বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ করা হয়। ওই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর নুরুল হুদা নামে এক প্রার্থীর স্ত্রীকে উপ-উপাচার্য চৌধুরী মোহাম্মদ জাকারিয়া ফোন করে ‘কত টাকা দিতে রেডি আছে’ তা জানতে চান। ৫৪ সেকেন্ডের ওই অডিও রেকর্ডটি সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।