লিভারপুলের বিপক্ষে নতুনদের পাচ্ছে না চেলসি

প্রিমিয়ার লিগের প্রথম বিগ ম্যাচ

প্রকাশ: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০     আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০       প্রিন্ট সংস্করণ

স্পোর্টস ডেস্ক

যাত্রাতেই লিভারপুল পরীক্ষা, তবু যেন নির্ভার চেলসির তরুণ ব্রিগেড। ড্রেসিংরুমের এই দৃশ্যই বলে দেয় সে কথা-টুইটার

যাত্রাতেই লিভারপুল পরীক্ষা, তবু যেন নির্ভার চেলসির তরুণ ব্রিগেড। ড্রেসিংরুমের এই দৃশ্যই বলে দেয় সে কথা-টুইটার

ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের সঙ্গে নানা কারণে সম্পর্কটা বেশ শীতল ইয়ুর্গেন ক্লপের। স্বদেশি টিমো ওয়ার্নারকে দলে চেয়েছিলেন লিভারপুল বস। কিন্তু ছোঁ মেরে তাকে নিয়ে গেছেন ল্যাম্পার্ড। গত মৌসুমে অ্যানফিল্ডে ৫-৩ গোলে হারের পরও ক্লপ ও তার সহকারীর সঙ্গে বেশ তর্ক হয়েছিল চেলসি কোচের। প্রিমিয়ার লিগে এই দুই বড় ক্লাবের লড়াইকে আরও বেশি আকর্ষণীয় করে তুলেছে দুই কোচের দ্বন্দ্ব। চেলসির মাঠ স্টামফোর্ড ব্রিজে আজ রাত সাড়ে ৯টায় মৌসুমের প্রথম বিগ ম্যাচে মুখোমুখি হবে এই দু'দল।

যদিও ল্যাম্পার্ড বলেছেন, নানা ঝুটঝামেলা হলেও ক্লপের জন্য তার আলাদা শ্রদ্ধা রয়েছে। চ্যাম্পিয়ন কোচ হিসেবে ক্লপকে অভিহিত করে সে সম্মানও দিয়েছেন চেলসি বস। তবে দুই কোচের শত্রুতা লড়াইয়ে অন্যরকম উত্তেজনা ছড়ালেও লিগের প্রথম ম্যাচে ১৬ বছর পর ফেরা লিডসের বিপক্ষে লিভারপুলের ডিফেন্সের দুর্বলতার কিন্তু উন্মুক্ত হয়ে গেছে। ওই ম্যাচে ৪-৩ গোলে জিতলেও অনেকের মতে, এই ডিফেন্স নিয়ে এবার লিভারপুলের লিগ শিরোপা ধরে রাখা কঠিন হবে।

তবে সন্দেহবাদীদের এসব কথার বেশ কড়া জবাব দিয়েছেন লিভারপুলের লেফট-ব্যাক অ্যান্ডি রবার্টসন। স্কটিশ এই তারকা বলেন, 'আসলে প্রতি মৌসুমেই আমাদের নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে। আর আমরা প্রতিবারই এই সন্দেহকে দূর করছি। আমরা যখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে (২০১৮) হেরে গেলাম তখন প্রায় সবাই ভেবেছিল, আমরা হয়তো আর এই ফাইনাল খেলতে পারব না। কিন্তু পরের বছর আমরা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতলাম এবং মাত্র এক পয়েন্টের জন্য প্রিমিয়ার লিগ হাতছাড়া হয়। এর পরও মানুষ প্রশ্ন তুলেছে আমাদের নিয়ে। সেই সন্দেহবাদীরা আবারও প্রশ্ন তুলছে। আশা করছি, এবারও আমরা তাদের জবাব দিতে পারব। তবে এখন আমরা শুধু পরের ম্যাচ নিয়েই ভাবছি।'

লিভারপুলের প্রতিপক্ষ চেলসি এবারের দলবদলে প্রায় ২০০ পাউন্ড খরচ করে দলের চেহারা অনেকটাই বদলে ফেলেছে। দুই জার্মান তারকা টিমো ওয়ার্নার ও কাই হাভাটর্জের সঙ্গে লিস্টার থেকে ডিফেন্ডার বেন চিলওয়েলকে উড়িয়ে এনেছেন ল্যাম্পার্ড। কিন্তু চেলসি কোচের মতে, লিভারপুলের বিপক্ষে বড় ম্যাচটা একটু আগেই চলে এসেছে। কারণ কাই হার্ভাটেজ, চিলওয়েল, হাকিম জায়িক এমনকি থিয়াগো সিলভা, ক্রিস্টিয়ান পুলিসিক পর্যন্ত লিভারপুলের বিপক্ষে খেলতে পারবেন না। শুধু ওয়ার্নারের খেলার ব্যাপারে আশাবাদি ল্যাম্পার্ড।

সে তুলনায় লিভারপুল দলবদলে অর্থই খরচ করেনি। শেষ মুহূর্তে এসে থিয়াগো আলকান্তারাকে দলে ভিড়িয়েছে। যদিও তিনিও ব্লুজদের বিপক্ষে খেলছেন না। এছাড়া পরিকল্পনার অংশ হিসেবে মোটা অর্থ খরচা করেছে ডিয়াগো জোটার পেছনে। তবে রবার্টসনের মতে, চেলসি ১৮ মাস দলবদলের বাজারে নিষিদ্ধ ছিল। আর হ্যাজার্ডকে বিক্রি করার অর্থ তাদের কাছে রয়েছে, তাই তারা খরচ করছে।